দৈনিক ইত্তেফাক 

২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং

বিশেষ শিশুরা গাইল গান
বিশেষ শিশুদের জন্য ছিল আয়োজন। সেই আয়োজনে বিশেষ শিশুরাই গান গাইলো, নাচলো সুরের তালে তালে। শুক্রবার রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়ামে যৌথভাবে কনসার্টের আয়োজন করে বামবা, পিএফডিএ ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন। আয়োজন উপলক্ষে বিশেষ বার্তা পাঠান বাংলাদেশ অটিজম ও নিউরো ডেভেলপমেন্ট ডিজঅর্ডার বিষয়ক জাতীয় উপদেষ্টা কমিটির চেয়ারপার্সন ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার শুভেচ্ছা দূত সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুল। তার সেই বার্তা পড়ে শোনান মাজহারুল মান্নান।
রাশেদ খান মেনন বলেন, সরকার অটিস্টিক শিশুদের জন্য দুটি গুরুত্বপূর্ণ আইন করেছে। বাংলাদেশ সকল প্রতিবন্ধকতা দূর করে এগিয়ে যাচ্ছে। এই  প্রতিবন্ধকতাকেও আমরা জয় করবো। ওদের জন্য চাই সবার ভালোবাসা ও সচেতনতা।
বার্তায় সায়মা ওয়াজেদ পুতল বলেন, বাংলাদেশ এমন একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র যেখানে মানুষে মানুষে কোনো ভেদাভেদ নেই। সেটা কেউ কোন কিছু করতে পারুক বা না পারুক। সবার অধিকারের বিষয়ে আমরা সবাই সদা জাগ্রত।
শুক্রবার দুপুরে এই আয়োজনের শুরুতেই গান নিয়ে আসে দৃক। তারা তাদের জনপ্রিয় গানগুলো পরিবেশন করে। এরপর থ্রাশ মেটাল গান নিয়ে শ্রোতাদের মাতায় পাওয়ার সার্জ। তুমুল করতালির মধ্য দিয়ে মঞ্চে আসে ব্যান্ড দলছুট। দিন বাড়ি যায়, তীরহারা এ ঢেউয়ের সাগরসহ কয়েকটি গান পরিবেশন করে তারা। এরপর দলছুট মঞ্চে আমন্ত্রণ জানায় বিশেষ শিশু সুপ্ত আর সায়মানকে। তারা দলছুটের সঙ্গে গাইলো তাদের জনপ্রিয় গান ‘বাজি’।  এরপর বিশেষ শিশুদের একটি দল গাইলো শাহ আবদুল করিমের বিখ্যাত গান ‘গাড়ি চলে না’। অটিস্টিক শিশু প্রমাণ করে দিল তারা চাইলেই সব পারে। এই আয়োজনে আরও গান গেয়ে শোনায় মাইলস, ওয়ারফেজ, মাকসুদ ও ঢাকা, সোলস, ভাইকিংস, নেমেসিসসহ মোট বারোটি ব্যান্ড।

Leave a Reply